shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

অনুভূতি বেজে ওঠে

Feelings rang out
Feelings rang out

অনুভূতি বেজে ওঠে

সুনীল শর্মাচার্য

অনুভূতি বেজে ওঠে

প্রাচীন ভারত নিয়ে ভেবে ভেবে রপ্ত

তন্ত্র মতে তিন ভাগে এ দেশ বিভক্ত:

.

বিন্ধ্যাচল, চট্টগ্রাম হয়ে বিষ্ণুক্রান্তা,

বিন্ধ্যাচল, কন্যাকুমারিকা অশ্বক্রান্তা

.

বিন্ধ্যাচল থেকে নেপাল ও মহাচীন

ভাবলে জটিল হয় ভাবনা অচিন!

.

কাশ্মীর প্রভৃতি দেশ নিয়ে রথক্রান্তা

সদ্যোজাত, পূর্বাম্নায়, তৎ মন্দাক্রান্তা…

.

প্রত্যেক ক্রান্তায় দেখি চৌষট্টি সমগ্র

মহাতন্ত্র, নীলতন্ত্র—আরো কত অগ্র!

.

প্রত্যেক মানুষ ভাবে শ্রেষ্ঠতম প্রাণী

এসব ভাবনা যত আজব প্রণালী!

.

কুকুর, বিড়াল, পাখি তারা শ্রেষ্ঠ নয়?

পৃথিবী সবার জানো, অধিকার ময়।

.

খাদ্যসংগ্রহের জন্য সবার উপর

নির্ভরশীল জানিবে, কেউ নয় পর!

.

জীবন রতন জানো অপার সুন্দর

মিলেমিশে দেখ ভাই, সেই পুরন্দর!

.

গাছপালা কেটে কেটে সব বৃক্ষ প্রেমী

সমাজে এমন রীতি দেখে হই ভ্রমী!

.

তত্ত্বকথা লিখি আজ খাতার উপর

কত ঘৃণা, প্রতিবাদ, ঘর গড়ে ঘর।

.

নাকে তেল দিয়ে যারা সব ঘুমিয়েছে

বেশ আছে ভেবে ভেবে বাঁচা শেষে গেছে।

.

পৃথিবী সুন্দর আছে বৃক্ষ ফুলে পাখি

বিবেক নিরেট হলে শুধু ডাকাডাকি।

.

যার যার আপনার মায়ের নিকটে

সব মায়া সব স্নেহ বোঝা যায় বটে!

.

আমাদের বোধ যেন গরুর মতন

সবার ভেতরে আছে পশু পশু মন।

.

জ্ঞান নিয়ে, শিক্ষা নিয়ে সব বোকা নাকি?

দিন শেষে প্রাণ ওড়ে, মন সব পাখি!

.

সকালে বিকালে সন্ধে কাল যেন ডাকে

মানুষের পাশে সত্য চিরদিন থাকে!

.

কাঠখড় পুড়িয়ে তো তৈরি হয়ে আছি

সুযোগ আসিলে আমি বুঝেসুঝে বাঁচি।

.

আমি বলব আমার কথা আবিষ্কৃত

সুযোগে স্বভাব হয় আসলে প্রকৃত…

.

গোপন রেখেছি সত্য মিথ্যে জুড়ে আছে

প্রকাশ পায় না তাহা সবার যে কাছে!

.

দেশীয় কবিতা কেউ লেখে না বিদেশে

কিছু ফল না পেয়ে সে বৃদ্ধ হয় শেষে!

.

দেখে তার কৃতি মৃত পাগল প্রলাপ

এত এত লেখা সব জীবন বিলাপ!

.

কেউ মাত্র এক শত কবিতা লিখেই

দার্শনিকদের মতো ভাবে নিজেকেই…

.

শ্রেষ্ঠ দার্শনিক বলে দাবিতে লিখেছে

শ্রেষ্ঠ এক দার্শনিক নিজেকে ভেবেছে

.

এর নাম দেবতার মগজ ধোলাই

মগজ ধোলাই হয় প্রতিক্ষণ ভাই!

.

যত কবি যত পদ্য এ পৃথিবীময়

গোলেমালে কবিগণ কী রহস্যময়!

.

আমাদের পৃথিবীতে যা পরমাশ্চর্য

লেখার কলম জানি দায় পরিত্যাজ্য!

.

মানুষের সততার ফলে ভালো মন্দ

পুনর্জন্ম লাভ করে ছড়ায় সুগন্ধ

.

পৃথিবীতে যা যা আছে কিছু থাকে উহ্য

রাজা প্রজা শ্রেণী রূপে বিভেদে নির্লজ্জ!

.

কম বেশি চা তো খায় সকল মানুষ

চা খাওয়া ক্ষতিকারক? ভাবনা ফানুস!

.

এই মত যারা যারা পোষণ করত

তারাও চা খায় প্রায় নেশাগ্রস্থে নত!

.

দেশে ও বিদেশে সব চা যে খাওয়া চলে

সভ্য শিক্ষিত জনও সেই কথা বলে!

.

এখন একটা কিছু লিখতেই হলো

সবার জন্য সবার দরজাটি খোলো!

.

আহার, নিদ্রা সবার প্রয়োজন হয়

প্রত্যেকেই এটা চায়, সকল বিস্ময়!

.

বঙ্গদেশে সবাই তো টাকাটা কামান,

তাতেই গর্বিত ভাবে নিজ অবদান।

.

টাকাটা ধনী গরিব বানিয়ে চলেছে

টাকার জন্য সভ্যতা ঘোলা হয়ে গেছে!

.

যা যুগ চলেছে দেখি এই বর্তমানে

সবাই রয়েছে মগ্ন যার যার গানে।

.

সারাটা জীবনে তুমি রয়েছ কোথায়?

রাত্রিটা জেগেছে দেখ রোহিনী তারায়…

.

শুনি এক নারীকণ্ঠ বলছে যে সেই—

পৃথিবী শক্ত জায়গা বুঝলে পরেই…

.

১০

মহাগ্রস্থ বেড়ে যায় হৃদয়ে আমার

অতীব রহস্য জানি জীবন পাথার!

.

ঘটনা ঘটছে অহ দেখে শুনে চুপ

বিবেক অসাড় হয় বোধহীন রূপ!

.

কোনোদিন আমি তাহা বুঝব না আর

বাতাসের শব্দ শুনে পথ হই পার!

.

১১

অপ্সরারা কিন্নরীরা কোথায় থাকে হে?

তাদের অস্তিত্ব বুঝি স্বপ্নে দেখেছি যে—

.

আমার দক্ষিণ কর যেমন সুস্পষ্ট

এসব ভাবনা-চিন্তা স্বপ্নে দেয় কষ্ট!

.

তবু অপ্সরারা নাচে সারাক্ষণ নাচে

আশ্চর্য কুহকে কানে জাগরণ বাজে!

.

…………………

পড়ুন

কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের একগুচ্ছ কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের ক্ষুধাগুচ্ছ

লকডাউনগুচ্ছ : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের গ্রাম্য স্মৃতি

নিহিত মর্মকথা : সুনীল শর্মাচার্য

প্রয়াণগাথা : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ

অন্যভুবনের কবিতা

ঘোড়া : সুনীল শর্মাচার্য

মুহূর্তের কবিতা

অনুভূতি বেজে ওঠে

মুক্তপদ্য

ভারতীয় কোলাজ

ইচিং বিচিং পদ্য : সুনীল শর্মাচার্য

গল্প

উকিল ডাকাত : সুনীল শর্মাচার্য

এক সমাজবিরোধী ও টেলিফোনের গল্প : সুনীল শর্মাচার্য

আঁধার বদলায় : সুনীল শর্মাচার্য

মুকুন্দ

প্রবন্ধ

কবির ভাষা, কবিতার ভাষা : সুনীল শর্মাচার্য

ধর্ম নিয়ে : সুনীল শর্মাচার্য

মতামত

ভারতীয় বাঙালি ও ভাষাদিবস

ভারতীয় বাম ও তাদের কিচ্ছা

মুক্তগদ্য

খুচরো কথা চারপাশে : সুনীল শর্মাচার্য

কত রকম সমস্যার মধ্যে থাকি

শক্তি পূজোর চিরাচরিত

ভূতের গল্প

বেগুনে আগুন

পরকীয়া প্রেমের রোমান্স

মুসলমান বাঙালির নামকরণ নিয়ে

এখন লিটল ম্যাগাজিন

যদিও সংকট এখন

খাবারে রঙ

সংস্কার নিয়ে

খেজুর রসের রকমারি

‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ পাঠ্যান্তে

মোবাইল সমাচার

ভালো কবিতা, মন্দ কবিতা

ভারতের কৃষিবিল যেন আলাদিনের চেরাগ-এ-জিন

বাঙালিদের বাংলা চর্চা : খণ্ড ভারতে

দাড়ি-গোঁফ নামচা

নস্যি নিয়ে দু-চার কথা

শীত ভাবনা

উশ্চারণ বিভ্রাট

কাঠঠোকরার খোঁজে নাসা

ভারতীয় ঘুষের কেত্তন

পায়রার সংসার

রবীন্দ্রনাথ এখন

কামতাপুরি ভাষা নিয়ে

আত্মসংকট থেকে

মিসেস আইয়ার

ফিরবে না, সে ফিরবে না

২০২১-শের কাছে প্রার্থনা

ভারতে চীনা দ্রব্য বয়কট : বিষয়টা হাল্কা ভাবলেও, সমস্যাটা কঠিন এবং আমরা

রাজনীতি বোঝো, অর্থনীতি বোঝো! বনাম ভারতের যুবসমাজ

কবিতায় ‘আমি’

ভারতে শুধু অমর্ত্য সেন নয়, বাঙালি সংস্কৃতি আক্রান্ত

ধুতি হারালো তার কৌলীন্য

ভারতের CAA NRC নিয়ে দু’চার কথা

পৌষ পার্বণ নিয়ে

প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে

শ্রী শ্রী হক কথা

বর্তমান ভারত

ভারতের এবারের বাজেট আসলে অশ্বডিম্ব, না ঘরকা না ঘাটকা, শুধু কর্পোরেট কা

ইন্ডিয়া ইউনাইটেড বনাম সেলিব্রিটিদের শানে-নজুল

ডায়েরির ছেঁড়া পাতা

অহল্যার প্রতি

উদ্ভট মানুষের চিৎপাত চিন্তা

তাহারা অদ্ভুত লোক

পৌর্বাপর্য চিন্তা-ভাবনা

নিহিত কথামালা

অবিভাজ্য আগুন

পাথরের মতো মৌন জিজ্ঞাসা

ভাবনা যত আনমনে

বিবেক পোড়ে অশান্ত অনলে

কালাকালের ডায়েরি

উন্মাদের নীতিকথা

করোনা, ভারতীয় জনগণ ও তার সমস্যা

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন...