shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে করণীয়

gas accidents

gas accidents

gas accidents

গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে আপনার কি কি করণীয় অথবা যা করবেন, জেনে নেয়া বা রাখা খুব খুব জরুরি। কারণ রাজধানী ঢাকা-সহ দেশের বিভিন্ন শহরে এরই মধ্যে গ্যাসলাইন পৌঁছে গেছে। অন্যদিকে, বেড়েছে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার।

আপনি নিশ্চয় অবগত আছেন, গ্যাসের পাইপলাইন ও চুলার সংযোগ থেকে প্রায়ই গ্যাস বের হয়ে অগ্নি দুর্ঘটনা ঘটে। এই দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে বেশ কিছু সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্বালানি বিভাগ।

উল্লেখ্য, ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, ময়মনসিংহসহ দেশের ১৪টি জেলায় তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি গ্যাস সরবরাহ করে।

সম্প্রতি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তাঁর ফেসবুকে গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে কিছু পরামর্শ দিয়ে পোস্ট দেন। যার কিছু অংশ তুলে ধরা হলো, সঙ্গে গ্যাস সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ রোধে যা যা করণীয়, জেনে রাখুন, সতর্ক থাকুন।

.

গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে করণীয় বা যা করবেন

বাসা কিংবা বাড়ির গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে রান্নাঘরে সার্বক্ষণিক বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা রাখুন। তাহলে রান্নাঘরে কোনো কারণে যদি গ্যাস নির্গতও হয়, তবে তা বাতাসের মাধ্যমে ঘর থেকে বের হয়ে যাবে।

যদি আপনার রান্নাঘরের জানালা-দরজা বন্ধ থাকে, তবে দরজা-জানালা খোলার অন্তত ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর চুলা জ্বালাবেন এবং বৈদ্যুতিক সুইচ অন করবেন।

যদি গ্যাসের গন্ধ পান, তাহলে কোনোভাবেই চুলা জ্বালাবেন না এবং বৈদ্যুতিক বাতির সুইচ অন করবেন না।

প্রতিবার রান্না শেষে চুলা বন্ধ রাখুন। নিয়মিত গ্যাসলাইন ও চুলার ছিদ্র পরীক্ষা করুন।

আপনার বাসায় ও আশপাশে গ্যাস বের হওয়া চিহ্নিত করার সঙ্গে সঙ্গে তিতাস গ্যাসের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

জরুরি ফোন নাম্বার

জরুরি গ্যাস নিয়ন্ত্রণ বিভাগ : ০২-৫৫০১২২৫৩

জরুরি গ্যাস নিয়ন্ত্রণ শাখা, উত্তর ব্যবস্থাপক : ০২-৫৫০৪৫১৩৩

জরুরি গ্যাস নিয়ন্ত্রণ শাখা, দক্ষিণ ব্যবস্থাপক : ০২-৯৫৬৩৬৭০

জরুরি অভিযোগ কেন্দ্র, গুলশান : ০২-৫৫০৪৫১১৩, ০২-৫৫০৪৫১১৪, ০১৯৫৫-৫০০৪৯৭, ০১৯৫৫-৫০০৪৯৮

জরুরি অভিযোগ কেন্দ্র, মতিঝিল : ০২-৯৫৬৩৬৬৭, ০২-৯৫৬৩৬৬৮, ০১৯৫৫-৫০০৪৯৯, ০১৯৫৫-৫০০৫০০

ধানমন্ডি টিম : ০১৯৫৫-৫০০১৯৪

মতিঝিল টিম : ০১৯৫৫৫০০১৮৮-৮৯

গুলশান টিম : ০১৯৫৫-৫০০১৯২

পোস্তগোলা টিম : ০১৯৫৫৫০০১৯০-৯১

মিরপুর টিম : ০১৯৫৫-৫০০১৯৩

উত্তরা টিম : ০১৯৫৫-৫০০১৯৫

এ ছাড়া, তিতাস গ্যাসের কল সেন্টারের ১৬৪৯৬ নম্বরে ফোন করতে পারেন।

.

গ্যাস সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ রোধে করণীয়

অন্যদিকে, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণেও প্রায়ই ঘটে মর্মান্তিক সব দুর্ঘটনা। তবে একটু সচেতন হলেই এড়ানো যায়—এ ধরনের বিস্ফোরণ। সিলিন্ডারের পাইপ, গ্যাসের রেগুলেটর ইত্যাদির ক্ষেত্রে একটু খেয়াল রাখলেই বাড়িকে নিরাপদ রাখা যায়।

বিশেষ করণীয়

১. অনেকেই পাইপ পরিষ্কার করতে সাবান ব্যবহার করেন। এটি ঠিক নয়। পরিষ্কার শুকনো কাপড় ব্যবহার করুন। খুব নোংরা হলে হালকা করে পানিতে ভিজিয়ে নিন কাপড়। সেই কাপড়েই পরিষ্কার করুন গ্যাসের পাইপ।

২. পরিষ্কার রাখতে গ্যাসের পাইপের গায়ে কোনো কাপড় বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়িয়ে রাখবেন না। এমন করলে পাইপ থেকে গ্যাস লিক হলে ধরা পড়বে না। একই পাইপ বছরের পর বছর ব্যবহার না-করে প্রতি দুই থেকে তিন বছর পর পর বদলে ফেলুন।

৩. গ্যাসের রেগুলেটরের নজল ভালো করে পাইপ দিয়ে ঢেকে রাখুন। গ্যাস বন্ধ করে বেরনোর আগে দেখে নিন গ্যাসের পাইপ যেন কোনোভাবে গরম বার্নারের গায়ে লেগে না থাকে।

৪. সিলিন্ডার গরম হতে পারে—এমন কোনো কাজ করবেন না। অনেকেই গ্যাসের রেগুলেটর বা দেশলাই ব্যবহারের পর অবহেলার সঙ্গে তা রেখে দেন সিলিন্ডারের উপরেই। এই কাজ কোনোভাবেই করবেন না। পৃথক জায়গায় আলাদা করে দেশলাই বা কাঠি রাখুন।

৫. রান্নাঘরে ঢুকেই গ্যাসের গন্ধ পেলে তখনই বেরিয়ে আসুন। ওই অবস্থায় কোনো সুইচ বোর্ড বা বৈদ্যুতিক যন্ত্র চালু করবেন না। সতর্কতার সঙ্গে নিজে বা অন্যকে দিয়ে অথবা সংশ্লিষ্ট লোক ডেকে পরীক্ষা করার পর প্রয়োজনীয় কাজ শুরু করুন।

—ডেস্ক শুভ বাংলাদেশ

Spread the love