shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

জয়িতা চট্টোপাধ্যায়ের চারটি কবিতা

Jayeeta-Chatterjee

চারটি কবিতা

জয়িতা চট্টোপাধ্যায়

জয়িতা চট্টোপাধ্যায়ের চারটি কবিতা

পাথরে কোলাজ

তোমার আমার মাঝখানে যতটুকু ঘাম তা হলো আশ্চর্য শরীরে, মাখন গলা রোদ, আমার কান্না মোছা রুমালটা একটা ছায়া, দীর্ঘ কথপোকথনের, মাঝখানে লুকিয়ে থাকে গুটিসুটি অব্যয় আমরাও দুহাত মুড়ে থাকি না-হলেই বিপদ বা বিপর্যয়, কিছু আগুন আছে যা জ্বলতে শেখেনি তাদের ফুটিয়ে তোলা অক্ষরে অক্ষরে, গোলাপি কারুকার্যময় তো শরীর তুলে ধরো পাথরে কোলাজ।

.

শহর

কাগজের মতো সাদা কুয়াশার পর্দা ছিঁড়ে আমার ট্রেন চলে যায়, তোমার থেকে বহুদূরে অন্ধকার সমুদ্রের পাগলা ঢেউয়ে ভাসিয়ে দিয়েছি তোমার কাছে না-পৌছনো চিঠি আমার শরীরে খোয়াই শুরু হয় সাঁকোর ওপর শহর দূরে দাঁড়িয়ে বনবীথি।

.

রজনীগন্ধা

স্টেশানের প্লাটফর্মে ভিড় করে

আমাকে কিনছে সবাই

কেউ জানে না কিছুক্ষণ আগে

আমার ঠিকানা ছিল শশ্মান আর কবরখানা

এখন আমি যাবো তোমার দামী ফুলদানির শোভা বর্ধন করতে

কেউ জানে না আমার পুরনো ঠিকানা।

.

ধুলো

কিছুক্ষণ আগে হেঁটে গেছো তুমি

ধুলো ভিজে উঠলেই তা স্পষ্ট বুঝতে পারি

অদৃশ্য কোনো পাথর থেকে জন্ম হয়েছিল আমাদের

আজ রাতের দুবাহু আলোর দিকে হাত বাড়ায়

কত স্বরবর্ণ ব্যঞ্জনবর্ণের ভেতর

কথাদের ছাড়াছাড়ি ধুলো ভিজিয়ে

তুমি হেঁটে গেছো একা

ছেঁড়া ছেঁড়া মেঘ ভেসে ওঠে

আকাশে রোদের কড়াকড়ি

পায়ের ছাপ সেখানে কেঁদে ওঠে হায়

কান্নাগুলো শিরশিরিয়ে

ধুলোর দিকে নেমে যায়।

…………………

পড়ুন

কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের একগুচ্ছ কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের ক্ষুধাগুচ্ছ

লকডাউনগুচ্ছ : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের গ্রাম্য স্মৃতি

নিহিত মর্মকথা : সুনীল শর্মাচার্য

প্রয়াণগাথা : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ

অন্যভুবনের কবিতা

ঘোড়া : সুনীল শর্মাচার্য

মুহূর্তের কবিতা

অনুভূতি বেজে ওঠে

আমার কবিতা

সনেটগুচ্ছ

সুনীল শর্মাচার্যের সনেটগুচ্ছ

ভারতীয় লিমেরিক

সনেট পঞ্চ

সুনীল শর্মাচার্যের বারোটি কবিতা

বন্ধু-বান্ধবীর জন্য একগুচ্ছ কবিতা

মুক্তপদ্য

ভারতীয় কোলাজ

ইচিং বিচিং পদ্য : সুনীল শর্মাচার্য

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন...