shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

পর্তুগালের কবিতা

Poetry of Portugal

পর্তুগালের কবিতা

মূল : ইসিলদা নুনেস

রূপান্তর : মাসুদুল হক

পর্তুগালের কবিতা

গোলাপগুলি শুকিয়ে গেল

(The roses withered)

গোলাপগুলো শুকিয়ে গেল তোমার দৃষ্টির বিশুষ্কতায়!

আমি আর তাদের স্বপ্ন দেখি না, প্রিয়! আমি আর তাদের জন্য কাঁদি না!

আমাদের দেহ, যা একসময় কেবল একটি দেহ ছিল,

আজ অব্যক্ত শব্দের নির্জনতায় ডুবে গেছে।

আমি আকুলতা এবং অলসতার অনুভূতিতে জড়িয়ে গেছি,

পুরনো ঘড়িটি যা এখন স্থির, একসময় আমাদের যৌথ সময়কে ধারণ করতো…

এমন একটা সময় ছিল যখন আমরা একে-অপরকে সমুদ্র এবং আকাশের মতো ভালোবাসতাম।

এবং এখন আমি সেই দিগন্তে নিজেকে ভয় পাই,

যেখানে আমার দেহটি নোঙ্গর হয়েছে নৌকো হিসাবে।

.

বাস্তবতা আমাকে বিরক্ত করে!

উন্মুক্ত দেওয়াগুলো তোমার পদচারণার প্রতিধ্বনিতে মুখর,

তোমার ইচ্ছার আলিঙ্গনে

এবং হাতের অসম্পূর্ণতার মধ্যে সমাপ্তি ঘটেছে আমাদের অন্তর্নিহিত বিদায়ের!

শীতের ধীর আগমন আমাকে বিরক্ত করে!

.

তুমি যে গোলাপ আমাকে দিয়েছিলে তা ইতোমধ্যে শুকিয়ে গেছে!

পুরনো দিনের ভেজা চুম্বন, এখন পাপে বিশুষ্ক!

সব আলিঙ্গনের মেয়াদ শেষ!

এবং আমার মুখের খাঁজগুলো ক্লান্ত স্মৃতি ধরে আছে

এই নাটকের দৃশ্যগুলো আমাদের জীবন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

বিদায় দিতে চায় না মন, বেদনায় মুখ শুকিয়ে গেল,

এই বিলম্বিত বিয়োগে অব্যক্ত শব্দরা নির্জনে স্থবির!

আমি আর তাদের স্বপ্ন দেখি না, প্রিয়! আমি আর কাঁদি না!

গোলাপগুলো শুকিয়ে গেল তোমার দৃষ্টির বিশুষ্কতায়!

.

মা, আমি জন্ম নিতে চাই না!

(Mother, I don’t want to be born!)

মা, তুমি জানো, আমি তোমার যন্ত্রণা অনুভব করি আমার কালিমাযুক্ত ত্বকে

আমার দেহ ব্যথায় উৎকীর্ণ হয়ে ওঠে তোমার শরীরে চালানো বেত্রাঘাতে

আমার আত্মা ক্ষত-বিক্ষত হয়ে ওঠে তোমার বুকে চাপানো অস্থির বাতাসে

মা, তুমি জানো, আমি তোমার চোখ থেকে প্রবাহিত প্রতিটি অশ্রু পান করেছি; পান করেছি

তোমার ফোঁপানো,

তোমার শোক,

তোমার চিৎকার,

তোমার ভয়

এবং ভালোবাসার সেই ক্ষুধা, বাস্তবের জন্য।

যখন অসভ্য হাতগুলো তোমার মর্যাদাকে লঙ্ঘন করে, তখন আমি তোমার গর্ভের মধ্যে লুকিয়ে পড়ি।

মা, ওরা তোমাকে অপমান করেছে। ওরা আমাকেও অপমান করেছে!

মা, তুমি যে পৃথিবীতে বাস করো—সে পৃথিবীকে আমি খুব ভয় করি

মা, আমি এই পৃথিবীর অংশ হতে চাই না।

তুমি জানো মা… আমি একটা ছোট্ট মেয়ে।

…………………

ইসিলদা নুনেস

(Isilda Nunes)

সাম্প্রতিক সময়ের পর্তুগিজ কবি, লেখক এবং শিল্পী। সাহিত্যের জন্য তিনি বেশ কিছু পুরস্কার অর্জন করেছেন। সম্প্রতি তিনি ইন্টার কন্টিনেন্টাল ওয়ার্ল্ড পোয়েট্রি প্রাইজ ‘কাইরাত দুসিনভ পারমান’ ২০২০; সেরা সাহিত্যের জন্য ‘সিজার ভাল্লেজো ২০২০’ বিশ্ব পুরস্কার; ‘গ্রিটো দে মুজার লিসবন ২০২১ অ্যাওয়ার্ড’ এবং সাহিত্য ও শিল্পগত উৎকর্ষতার জন্য ‘আগুইলা দে ওরো’ পুরস্কার বিজয়ী হয়েছেন।

তার কবিতা ইংরেজি, স্প্যানিশ, হিন্দি, সার্বিয়ান, পোলিশ, বাংলা এবং ম্যান্ডারিন ভাষায় অনূদিত হয়েছে; সেগুলো ভারত, বাংলাদেশ, পোল্যান্ড, সার্বিয়া, ব্রাজিল, পেরু, ক্রোয়েশিয়া, গ্রিস, সেশেলস প্রজাতন্ত্র, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের পত্র-পত্রিকা ও সম্পাদিত গ্রন্থে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রায় চল্লিশটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সম্পাদিত গ্রন্থে তার কবিতা, ছোটগল্প ও উপন্যাস মুদ্রিত হয়েছে। সাহিত্য-বিষয়ক বিভিন্ন ম্যানুয়ালে তিনি সহ-লেখকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তার বেশকিছু একক কবিতা, গল্প ও উপন্যাস গ্রন্থ রয়েছে।

ইসিলদা নুনেস রেডিও এবং টেলিভিশনে সাহিত্য-বিষয়ক প্রোগ্রামে নিয়মিত অংশগ্রহণ করে থাকেন। এ ছাড়া তিনি বিভিন্ন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সংগঠনে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে রয়েছেন।

…………………

পড়ুন

কবিতা

প্যালেস্টাইন ও অন্যান্য কবিতা

অনুবাদ কবিতা

মাসুদুল হকের অনুবাদে নেপালি কবিতা

আমেরিকার কবিতা : বিড়াল এবং অন্যান্য কবিতা

পর্তুগালের কবিতা

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন...