সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৮সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়...

সারাদেশ

বাবুই পাখির বাসা, দৃষ্টির আড়ালে চলে যাচ্ছে গ্রাম-বাংলার এই ‘শিল্প’
ইতিহাস-ঐতিহ্য, সারাদেশ

বাবুই পাখির বাসা, দৃষ্টির আড়ালে চলে যাচ্ছে গ্রাম-বাংলার এই ‘শিল্প’

বাসা তৈরিতে নিপুণ বলে বাবুই পাখিকে অনেকে তাঁতি পাখি বা বুননী পাখিও বলে। একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলে সারি সারি উঁচু তালগাছে বাবুই পাখির দৃষ্টিনন্দন বাসা দেখা যেত। এখন তা আর সচরাচর চোখে পড়ে না। রহস্যে ঘেরা এই বাবুই পাখির বাসা, দৃষ্টির আড়ালে চলে যাচ্ছে ক্রমশ। কালের বিবর্তনে ও পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে সেই দৃষ্টি ভোলানো পাখিটিকেও তার নিজের তৈরি বাসা—যা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে আরো ফুটিয়ে তুলত, তা আজ আমরা হারাতে বসেছি। কিন্তু বাবুই কেন এই অদ্ভুত প্রজাতির বাসা বানায়? এর পেছনে কি কোনো উদ্দেশ্য বা কারণ আছে? হ্যাঁ তার এই বাড়ি বানানোর পেছনে রয়েছে বিচিত্র সব তথ্য। রহস্যে ঘেরা বাবুই পাখির বাসা, দৃষ্টির আড়ালে চলে যাচ্ছে গ্রাম-বাংলার এই ‘শিল্প’ বাবুই পাখির বাসা ও জীবনযাপন নিয়ে ভারতের একজন খ্যাতিমান পাখি বিশারদ এক অদ্ভুত তথ্য দিয়েছেন। খুব কাছে থেকে তাঁর তীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণের ...
ঐতিহ্যের নিদর্শন তিনতলা মাটির ঘর
ইতিহাস-ঐতিহ্য, বাসস্থান, সারাদেশ

ঐতিহ্যের নিদর্শন তিনতলা মাটির ঘর

একসময় গ্রামের প্রতিটি বাড়িতে ছিল মাটির ঘর। আর, এই মাটির ঘর ছিল ঐতিহ্যের নিদর্শন। কালের বিবর্তনে ইট-পাথরের দালানের ভিড়ে তা দিনে দিনে হারিয়ে যাচ্ছে। আধুনিকতার ছোঁয়ায় বর্তমান প্রজন্মের অর্থশালীরা বাপ-দাদার ঐতিহ্য বহনকারী মাটির ঘর ভেঙে লোহা-সিমেন্টের বিলাসবহুল বহুতল বাড়ি বানানোর দিকে ঝুঁকেছেন। গ্রাম-বাংলার শীত ও গরমের সময় বেশ আরামদায়ক। এখনকার দালানের মতো একসময় গ্রামের বিত্তশালীরা অনেক টাকা-পয়সা ব্যয় করে মাটির বাড়িও তৈরি করতেন। এমনকি দৃষ্টিনন্দন বহুতল মাটির ঘর নির্মাণ করতেন অনেকে।  তবে এসব বাড়ি এখন প্রায় বিলুপ্তির পথে। এর মধ্যেও বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার নিমাইদীঘি গ্রামে রয়েছে ৪৩ বছর আগে বানানো ৭ কক্ষের তিনতলা মাটির বাড়ি, ঐতিহ্যের নিদর্শন। সরেজমিনে দেখা গেছে, নন্দীগ্রাম উপজেলা সদর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার পশ্চিম-উত্তরে থালতা মাজগ্রাম ইউনিয়নের নিমাইদীঘি গ্রামে মা...
বিদ্যুৎ উৎপাদনে এই প্রথম ‘হাইব্রিড সোলার উইন্ড টাওয়ার’ হাতিয়া দ্বীপে
তথ্যপ্রযুক্তি, বাংলাদেশ, বিশেষ প্রথম, সারাদেশ

বিদ্যুৎ উৎপাদনে এই প্রথম ‘হাইব্রিড সোলার উইন্ড টাওয়ার’ হাতিয়া দ্বীপে

দেশে প্রথমবারের মতো বিদ্যুৎ উৎপাদনে ‘হাইব্রিড সোলার উইন্ড টাওয়ার’ সুল্যশন স্থাপন করল সমন্বিত টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সেবা কোম্পানি ‘ইডটকো বাংলাদেশ’। ৭৫ মিটার লম্বা টাওয়ারটি স্থাপন করা হয়েছে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত দ্বীপ হাতিয়ায়। প্রত্যন্ত এই দ্বীপটিতে কোনো বাণিজ্যিক বিদ্যুৎ সংযোগ নেই। ঘন ঘন ঘূর্ণিঝড় এবং তীব্র জোয়ারের ঝুঁকির কারণে এই এলাকার সঙ্গে সংযোগ রক্ষা করাও খুব কঠিন। নবায়নযোগ্য এই এনার্জি সল্যুশনটি বাংলাদেশে এবারই প্রথম তৈরি হলো। বিশেষত, দেশের যেসব এলাকা জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেসব এলাকায় প্রয়োজনীয় নেটওয়ার্ক সংযোগ স্থাপনের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়েই এটি তৈরি করা হয়েছে। ইডটকো জানায়, উদ্ভাবনী, টেকসই এবং বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী সল্যুশন স্থাপনের মাধ্যমে টেলিকম টাওয়ারগুলোতে বিকল্প শক্তি ব্যবহার করে দেশজুড়ে নিরবচ্ছিন্ন সংযোগ নিশ্চিত করতে যে প্রচেষ্টা ইডট...
আর্সেনিক শনাক্তসহ ৫২ জেলায় বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিতে সরকারের নানা উদ্যোগ
অন্ন, পরিবেশ, বিশেষ প্রথম, সারাদেশ

আর্সেনিক শনাক্তসহ ৫২ জেলায় বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিতে সরকারের নানা উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে আর্সেনিক শনাক্তসহ ৫২ জেলায় বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিতে বর্তমান সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় দেশজুড়ে নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে একাধিক প্রকল্পের মাধ্যমে জোরেশোরে কার্যক্রম চালাচ্ছে। কোনো মানুষ যেন অনিরাপদ পানি পান না-করে, সে-জন্য সরকার কয়েকটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এ লক্ষ্যে নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের আওতায় পানি পরীক্ষাগার স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গত বছরের ডিসেম্বরে প্রকল্প পূর্ণাঙ্গ অনুমোদন পায় এবং ইতোমধ্যে প্রকল্পের কাজ কয়েকটি জেলায় প্রাথমিকভাবে শুরু করা হয়েছে হয়েছে। এই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে আড়াইশ’ কোটি টাকা। আর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ৫২ জেলার মানুষ বিশুদ্ধ পানি পাবে। একই সঙ্গে সারাদেশের ৫৪ জেলায় আর্সেনিকমুক্ত পানি সরবরাহের জন্য প্রকল্পও হাতে নেয়া হয়েছে। স্...
সবজি চাষ : শ্রমিকদের কাজের অভাব হয় না উত্তরাঞ্চলে
কৃষি, বিশেষ প্রথম, সারাদেশ

সবজি চাষ : শ্রমিকদের কাজের অভাব হয় না উত্তরাঞ্চলে

সবজি চাষে শ্রমিকদের কাজের অভাব হয় না, বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলে। শীত আসতে এখনো অনেক দেরি। তবে চাহিদাপূরণে আগাম শীতকালের সবজি চাষাবাদ শুরু করছেন কৃষকরা। এরই মধ্যে সবজির চারা প্রস্তুত হয়ে গেছে। চলছে পরিচর্যা ও রোপন করার জমি তৈরির কাজ। চারা রোপন করতে মাঠে জৈব সার প্রয়োগ করছেন চাষিরা। আগামী কিছু দিনের মধ্যেই ফুলকপি, বাঁধা কপির চারা রোপন করবেন তারা। রোপনের ৬০ দিনের মধ্যে শীতের বাজারে আসবে চাষিদের উৎপাদিত ফুলকপি ও বাঁধা কপি। এরই মধ্যে লাউ, ঝিঙ্গা, মুলা বাজারে উঠতে শুরু করেছে। শিম, টমেটো, বেগুন কিছু দিনের মধ্যেই বাজারে উঠবে বলেও জানান চাষিরা।  বিভিন্ন জাতের সবজি চাষাবাদ করে নিজেদের ভাগ্যেরও পরিবর্তন করেছেন অনেকে। অন্যান্য ফসলের ক্ষেতে সারা বছর কাজ থাকে না। কিন্তু দেশের উত্তরাঞ্চলে সারা বছরই সবজি চাষাবাদ হওয়ার কারণে কৃষি শ্রমিকদের কাজের অভাব হয় না। বেশি ফলনের জন্য আধুনিক চাষ...
টংকনাথ ও হরিপুরের রাজবাড়ির খোঁজে
বিশেষ প্রথম, ভ্রমণ, সারাদেশ

টংকনাথ ও হরিপুরের রাজবাড়ির খোঁজে

টংকনাথ ও হরিপুরের রাজবাড়ির খোঁজে—অনেকটা পথচলা। দেখা হলো : টংকনাথ ও হরিপুর রাজবাড়ি—দুটি পৃথক স্থাপনা। এর সঙ্গে ফানসিটি এমিউজমেন্ট পার্ক, খুনিয়াদিঘি ও স্মৃতিসৌধ, রানীদিঘি, হরিপুর উপজেলা কমপ্লেক্স ও নাগর নদী। খাওয়া হলো হরিপুরের বিখ্যাত খাবার... ভ্রমণপিপাসু মানুষই শুধু বুঝবেন কথাটির মর্ম, তা হলো—কয়েকদিন ঘরে বন্দি থাকলেই মনটা বাইরে যাওয়ার জন্য ছটফট করতে থাকে। করোনার জন্য ছয় মাস ধরে বাড়ির বাইরে যেতে পারছি না। মন তো আকুপাকু করছে। কী করা যায়? এ নিয়ে যখন মনে মনে ভাবছি, তখন পথ দেখিয়ে দিলো ফেসবুক। একজনের পোস্ট থেকে জানতে পারলাম, পার্শ্ববর্তী ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলায় রয়েছে বিশাল এক দিঘি রানীসাগর। আর আছে রাজা টংকনাথের রাজবাড়ি। ভাবলাম রাণীশংকৈল তো কাছেই। দিব্যি ঘুরে আসতে পারি। দিনাজপুরের বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ অপু দে’কে সাথে পেলাম। কাজেই দিনক্ষণ ঠিক করে শরতের এক সকালে মাই...
২০০ টাকা পুঁজিতে এখন ৩০ লাখ টাকার ফুলের বাগান
অর্থনীতি, কৃষি, সারাদেশ

২০০ টাকা পুঁজিতে এখন ৩০ লাখ টাকার ফুলের বাগান

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : মাত্র ২০০ টাকা পুঁজিতে বিশ্বমানের ফুলের বাগান গড়ার স্বপ্ন বুনেছিলেন মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের তরুণ উদ্যোক্তা তানভীর। তার নার্সারিতে এখন প্রায় ৩০ লাখ টাকার দেশি-বিদেশি ফুল ও গাছের সমাহার। হরিরামপুর নামের সঙ্গে পুরো মানিকগঞ্জকে সমৃদ্ধ করেছে তানভীরের ফুলের বাগান। এই ফুলের বাগান দেশের অন্য উদ্যোক্তা তরুণদের মডেল হতে পারে বলে মনে করেন কৃষিবিদরা। শৈশব থেকে বাড়ির আঙিনায় মায়ের গড়ে তোলা বাহারি ফুলের বাগান দেখে বেড়ে উঠেছেন তানভীর। ফুলের প্রতি ভালোবাসা ও আগ্রহ ছিল বরাবর। সে-কারণে পিতার ভিটায় গড়ে তুলেছেন একটি ফুলের নার্সারি। লেখাপড়া করেছেন দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ‘প্রাচ্যের অক্সফোর্ড’খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে, ইংরেজি সাহিত্যে। চাকরির পেছনে হন্যে হয়ে না-ঘুরে ফুল ভালোবেসে গ্রামে ফিরেছেন। তানভীরের বাবা প্রয়াত আব্দুল মোন্নাফ কৃ...
ইউএনও ওয়াহিদার ‍উপর হামলা রহস্য উদঘাটনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে, ২ জন গ্রেফতার
বিশেষ প্রথম, সারাদেশ, হামলা

ইউএনও ওয়াহিদার ‍উপর হামলা রহস্য উদঘাটনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে, ২ জন গ্রেফতার

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের উপর হামলার ঘটনায় কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে। এ ছাড়া ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ওপর হামলার ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। হাকিমপুর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ ওসি জানান, র‌্যাব, পুলিশ, পিবিআই, সিআইডি ও পুলিশের বেশকিছু ইউনিট রাতভর অভিযান চালিয়ে আজ ভোরে (শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০) জেলার হিলির কালিগঞ্জ এলাকা থেকে আসাদুল হক (৩৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে। তার বাড়ি ঘোড়াঘাট উপজেলার সাগরপুর এলাকায়। বাবার নাম আমজাদ হোসেন। ওসি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাকিমপুর, বিরামপুর ও ঘোড়াঘাট থানা এবং র‌্যাব রংপুর-১৩-এর একটি দল যৌথভাবে অভিযযান চালিয়ে শুক্রবার (আজ) ভোর ৪টা ৫০মিনিটের দিকে হিলির কালিগঞ্জ এলাকা থেকে আসাদুলকে গ্রেফতার করে। তাকে রংপুরে র‌্য...
বন্যাদুর্গত ৯০ হাজার পরিবার পাবে উঁচু পাকা বাড়ি
বাংলাদেশ, বাসস্থান, বিশেষ প্রথম, সারাদেশ

বন্যাদুর্গত ৯০ হাজার পরিবার পাবে উঁচু পাকা বাড়ি

প্রধান প্রতিবেদক : দেশে বন্যাদুর্গত পাঁচ জেলার ৯০ হাজার পরিবারকে উঁচু পাকা বাড়ি করে দেবে সরকার। শুধু তাই নয়, একই সঙ্গে এসব পরিবারের জন্য বিশুদ্ধ পানি পানের জন্য একটি করে টিউবওয়েল, কর্মসংস্থানের জন্য ছাগল পালন ও ছোটখাটো সবজি বাগান করে দেওয়া হবে। এ-জন্য ১৩ বিলিয়ন ডলারের নতুন প্রকল্প গ্রহণ করেছে সরকার। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউণ্ডেশন পিকেএসএফ-এর অধীন কয়েকটি এনজিও এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। ২০২৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে এ কর্মসূচি শেষ হবে। পিকেএসএফ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ডের (জিসিএফ) অর্থায়নে ‘এক্সটেন্ডেড কমিউনিটি ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রজেক্ট-ফ্লাড (ইসিসিপি-ফ্লাড)’ নামের নতুন একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে পিকেএসএফ। কাগজে কলমে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে মাঠ পর্যায়ে কাজ শুরু করবে পিকেএসএফ। প্রকল্পের প্রথম পর্যায়ে...
ঘুষের টাকা ফেরত পেতে অনশন
ঘুষ, সারাদেশ

ঘুষের টাকা ফেরত পেতে অনশন

মেহেরপুর প্রতিনিধি : মেহেরপুরের গাংনী পৌর মেয়রকে ঘুষ দেওয়া ১৫ লাখ টাকা ফেরতের দাবিতে আবারো অমরণ অনশনে বসেছেন মৌমিতা খাতুন পলি ও তার মা। গত মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে গাংনী উপজেলা পরিষদ শহীদ মিনার চত্বরে অনশনে বসেন তারা। মৌমিতা খাতুন পলি গাংনী পৌর এলকার শিশিরপাড়া গ্রামের শাহাবুদ্দিন ওরফে বাহাদুরের ছেলে মোমিনের স্ত্রী। মৌমিতা খাতুন পলি জানান, চাকরির দেওয়ার নামে ঘুষ নিয়ে সেই টাকা মেয়র ফেরত না-দেওয়ায় প্রথম দফা অনশন, তার পর সালিশ বৈঠক হলো। এর পরও কোনো কূল কিনারা না-পেয়ে আজ থেকে দ্বিতীয়বারের মতো অনশন শুরু করলাম। আমার গর্ভে সন্তান। টাকা না-দেওয়ায় আমার স্বামী এখন আমাকে নিতে চাচ্ছে না। একমাত্র মৃত্যুই এর সমাধান। আমি আর উঠছি না। আমি ও আমার অনাগত সন্তান মারা গেলে আমাদের লাশ বাড়ি যাবে। গত ২১ আগস্ট রাতে গাংনী থানা চত্বরে পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলামের উপস্থিতিতে তার বিরুদ্...