shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

শর্মিষ্ঠা বিশ্বাসের তিনটি কবিতা

Sharmistha Biswas

তিনটি কবিতা

শর্মিষ্ঠা বিশ্বাস

শর্মিষ্ঠা বিশ্বাসের তিনটি কবিতা

মেঘের নিচে

বর্ষার পাণ্ডুলিপিতে আমাদের আদি দেবতারা ফন্দি আঁটেন।

.

জলের স্ফুটনে অতীতের তলহীন কুয়া থেকে উঠে আসে পুরনো মানুষেরা।

.

এক উঠোনময় মেঘের নিচ থেকে যতিচিহ্নহীন কাব্যের সর্গে

ইন্দ্র দেবতা

বৃদ্ধ কৃষকের অধিকার প্রতিষ্ঠা করে বয়ে নিয়ে গেলেন জীবিকার বৃষ্টিকে।

.

সব মেঘে মেঘমল্লার বাজে না।

.

বাবুই এর কাছে ক্রমশই

ছোট হয়ে যাচ্ছে অট্টালিকার পাহাড়ে ঘেরা শহুরে চরাই পাখির ডাক।

.

অন্ধকার

জয় মা বলে কথা শুরু করলেন রাত্রি।

কালোদের নাগরিক উন্নয়ন সংস্থা ন্যাশনাল পার্কের কাছে,

ঠিক যেখানে পৃথিবীর আয়ুকাল অনিঃশেষ অন্ধকারে জ্যোৎস্না ছড়ায়,

ঠিক সেইখানেই রাত ও দিনের সন্ধিক্ষণে গির্জার ঘণ্টাঘর থেকে ঢং ঢং করে প্রহর এগিয়ে এলো।

.

এখন

আলো

আর

কালো বিড়ালের সম্পর্ক নিয়ে

পদার্থবিদ হকিংয়ের সঙ্গে

প্রয়োজনীয় কথার ঘোড়া

ছুটছে আলোর গতিবেগের বিপরীতে।

.

মায়া

গতিতে বাড়তে পারে ঝড়।

আবহাওয়া অফিস থেকে গাছ নোটিফিকেশন পেয়েছে।

.

ঝড়-জলের এমন রাতকে পৃথিবীর শেষ স্টেশনে নামাতে গিয়ে বোধিবৃক্ষ চুম্বনে ভরিয়ে দিলো গাল।

.

বাতসের গতিমুখ দেখা সেই মোরগ বলে উঠলো

এতো মায়া ভালো নয়।

…………………

পড়ুন

সুনীল শর্মাচার্যের একগুচ্ছ কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের ক্ষুধাগুচ্ছ

লকডাউনগুচ্ছ : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের গ্রাম্য স্মৃতি

নিহিত মর্মকথা : সুনীল শর্মাচার্য

প্রয়াণগাথা : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ

অন্যভুবনের কবিতা

ঘোড়া : সুনীল শর্মাচার্য

মুহূর্তের কবিতা

অনুভূতি বেজে ওঠে

আমার কবিতা

সনেটগুচ্ছ

সুনীল শর্মাচার্যের সনেটগুচ্ছ

ভারতীয় লিমেরিক

সনেট পঞ্চ

সুনীল শর্মাচার্যের বারোটি কবিতা

Spread the love