বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৫সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়...

কবিতা

ঘোড়া
কবিতা, সাহিত্য

ঘোড়া

ঘোড়া সুনীল শর্মাচার্য (সিবলি ও বাদশাকে) ঘোড়া ১ স্থির দাঁড়িয়ে আছে; পায়ে তার গতির রহস্য; চলনের অজস্র ভঙ্গি ছড়িয়ে আছে— . রক্তে তার ঊর্ধ্বগতি; চোখ স্নেহমাখা; দিগন্তকে ডাকে . টগবগিয়ে ধুলো উড়িয়ে ছোটে লক্ষভেদ; বিশাল মাঠ তাকে শব্দ করে ডাকে— . ২ ঘাসের ওপর সে দাঁড়িয়ে ঘুমন্ত স্মৃতির মতো শিথিল দেহ, নিষ্ঠুর পিঠ খোলা মাঠ; সূক্ষ্মপাতার সরল শব্দে চুপ; শব্দের অর্থ সে বোঝে না; শুধু শরীরে উদ্দীপনার রেশ ছোটার আনন্দে ঘাস কাঁপায় মাটি কাঁপায়, ব্রহ্মের মতো চোখে স্বপ্ন মাখা, দুর্বোধ্য আবেগ . ঘাস অথবা সে জানে না— অনুতপ্ত যারা মাটি ছুঁয়ে বাঁচে! . ৩ প্রস্তর যুগ থেকে তাকে মাঠে ছুটতে দেখি; বোধের মাটিতে তার নাল পোঁতা, গতির পিঠ চুলকে দিচ্ছে সহিস... . খানাখন্দ এক লাফে পেছনে ফেলে দ্রুত এগিয়ে য...
অন্যভুবনের কবিতা
কবিতা, সাহিত্য

অন্যভুবনের কবিতা

অন্যভুবনের কবিতা সুনীল শর্মাচার্য অন্যভুবনের কবিতা ১ এমনই খেলা; না খেলে থাকা যায় না প্রতিক্ষণে ইচ্ছের সব ইট সাজাই আকাশ-পাতাল ঘুরে কত ফন্দি শানাই তারপর রাতে খেলা শুরু হলে দেখি— আমি টুকরো হয়ে যাই তোমার চুম্বনে... . ২ স্পর্শ ঘন হলে রসে ভিজে ওঠে ক্রমে গুহার দেয়াল, কেঁপে ওঠে গুপ্ত রাগ— যুদ্ধের প্রস্তুতি চলে দুজন যোদ্ধার বুক কাঁপে, ঠোঁট কাঁপে, বাঁশি সুর তোলে কামরূপ ফুটে ওঠে দুজনের নিবেদনে... খেলা, কি যে খেলা, দেহে মিশে খরশান! . ৩ চোখ মেলে দেখে : পাশে ফুল অঝরে ঘুমায়; বুক করে ওঠানামা; দুটি পিণ্ডজুড়ে নিসপিস হাত; ঘুরে চলে, ঘুরে চলে সমস্ত শরীরে গোপন রাগে জাগ্রত হয়... . তারপর আলিঙ্গনে বদ্ধ ভাসমান কাঠ : পরস্পর আঁকড়ে ধরে কি বেগমান ঠোঁটে ঠোঁটে রস চুষে খায়... . রক্তের স্বাদে তখন উগ্র দুজন শিকারি; দ...
সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ
কবিতা, সাহিত্য

সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ

কবিতাগুচ্ছ সুনীল শর্মাচার্য সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ আত্মরতি নখ দিয়ে খামছে তুলি ময়লা মনের ময়লা তুলতে পারি না! . এ আমার ব্যর্থতা, ......... .........এ আমার মর্যাদা! . একটা লাল পিঁপড়ে একটা লাল পিঁপড়ে এত ছোট, এত ক্ষুদ্র যে চোখেও পড়ে না . তবু সে কামড়ালে তার অস্তিত্ব প্রখর! . বিশ্বাস অসংখ্য যে মানুষ কি নামে ডাকি— . শেকড়ে রয়েছে ধর্ম... বিশ্বাস, অসম্ভব দামি! . নীরব ঘাতক সময় নীরব ঘাতক . কার কখন কেড়ে নেয় প্রাণ! . দৃশ্যগুলো ট্রেন আসে যায় . স্টেশনে পাখির কলতান... . কেউ ফেরে কেউ ফিরে যায়... . দৃশ্যগুলো শূন্যে মিলে যায়... . সন্ধ্যা সন্ধ্যা ছুঁয়ে বসে আছি . সামনে ধু ধু প্রান্তর মাঠের পরে মাঠ ঝাঁকে ঝাঁকে পাখি উড়ে যাচ্ছে কূলায় ...
চন্দ্রশিলা ছন্দার দশটি কবিতা
কবিতা, সাহিত্য

চন্দ্রশিলা ছন্দার দশটি কবিতা

দশটি কবিতা চন্দ্রশিলা ছন্দা চন্দ্রশিলা ছন্দার দশটি কবিতা জলপিপি আমার কোনো ব্যবসা-বাণিজ্য ব্যাংক ব্যালেন্স নেই। বাবা মা গত হয়েছেন ছোটবেলাতেই তেমন কোনো আত্মীয়-স্বজন আছে বলে জানা নেই, নেই জায়গা জমি ঘর বাড়ি থাকার কোনো আশ্রয় এক কথায় কোনো সম্পদই নেই আমার সম্পদ যার যত কম, তার হিসেব নাকি...!  সন্তান-সন্ততি ছিল, তারা মেরুদণ্ডহীন ইহকালে টিকে থাকতে আমার করণীয়গুলো কি? সেইসব বুঝে ওঠার আগেই আমার গলায় ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে পরকালের হিসেব-নিকেশ পাহাড়বাসীদের কারো কারো ঈশ্বর প্রাপ্তি ঘটেছে, গাছতলায় সিদ্ধি লাভ গুহাবাসে নবীরা হয়েছেন ওহী প্রাপ্ত আমি জাগতিক যন্ত্রণা থেকে পালিয়ে বাঁচতে অক্ষর আর পৃষ্ঠার ভাঁজে ভাঁজে ডুবেছি দিনের পর দিন... মাস বছর হয়েছি কবিতা প্রাপ্ত অথচ কবি না-হয়ে হলাম জলপিপি বুকজুড়ে শুধু তৃষ্ণা তৃ...
শিশির আজমের পাঁচটি কবিতা
কবিতা, সাহিত্য

শিশির আজমের পাঁচটি কবিতা

পাঁচটি কবিতা শিশির আজম শিশির আজমের পাঁচটি কবিতা পল ব্রেইমারকে পল ব্রেইমার, ইরাকের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের মার্কিন বেসামরিক উপদেষ্টা, আপনি মিস্টার বুশের কাছে আরো সৈন্য চেয়ে পাঠান। . সন্ত্রাসীদের চোরাগোপ্তা হামলায় প্রতিদিন আপনার দশ-পনেরো জন সৈন্য মারা যাচ্ছে। অবশ্য আপনার সুপ্রশিক্ষিত সৈন্যরা এর উচিত জবাব দিতে মোটেও কার্পণ্য করছে না। . বাগদাদের ন্যাশনাল মিউজিয়াম লুট হয়ে গেল। আর এতে বেশি কিছু করার ছিল না, কেননা মার্কিন সৈন্যরা তখন দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে চিনাবাদাম খাচ্ছিল। . মূল্যবান তেলক্ষেত্রগুলোর কোনো ক্ষতিই হয়নি। জ্বালানি তেলের ব্যাপারে আমেরিকার নিজস্ব দীর্ঘস্থায়ী পরিকল্পনা রয়েছে। . ইরাকে আপনার নিরাপত্তা দিন দিন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। পাবলিক সেন্টারগুলোর দায়িত্বে নিয়োজিত সৈন্যরা আক্রমণের শিকার হচ্ছে। এমনটা আশা করা যায়নি। গণতন্ত্র যে একটা প্রক্...
রওশন রুবীর ছয়টি কবিতা
কবিতা, সাহিত্য

রওশন রুবীর ছয়টি কবিতা

ছয়টি কবিতা রওশন রুবী রওশন রুবীর ছয়টি কবিতা আমাদের রোদগুলো আমাদের রোদগুলো লেপ্টে আছে যেন রোদনদী নৌকো নিয়ে ছুটে যায় কত কত বয়সী সেই রঙ; মাছ-গন্ধ, কাচিমগন্ধ, মানুষ, সবুজ আর ছায়া-গন্ধ ভেসে যায় তেরসা, সোজা, আঁকা-বাঁকা। . আমাদের রোদগুলো জুলিয়েট, মোনালিসা, শাহজাহান, সিরাজউদ্দৌলা, বখতিয়ার খলজি, প্রয়োজনে কাছে, অপ্রয়োজনে দূরে সরে যায়। . শহরটাও প্রসারিত হতে থাকে মাসের শুরুর দিকের কথা, এক কোণে শহর এসে শেষ, গুমোট হাওয়া কপোতের গায়ে আঁকে তারাপুঞ্জের আলপনা, দু’চারবার চোখ ফিরিয়েও আটকে রইলাম। . এগিয়ে গেলাম সামনে। শ্রমিকের ঘাম আর ক্লান্তি ভেজা বাতাস এখানে স্যাঁতস্যাঁতে ইট ভাঙা কুৎসিত রুক্ষ হাত চা এগিয়ে বলল— শহরের ছায়া তল নেই, ক্লান্তি দম ফেলে এই উত্তাপে, নে একটুকরো রোদ, অনুসরণ কর রুক্ষতার পা, পাথুরে ভূমি পরে দেয়াল ...
প্রদীপ মিত্রের দশটি কবিতা
কবিতা, সাহিত্য

প্রদীপ মিত্রের দশটি কবিতা

প্রদীপ মিত্রের দশটি কবিতা প্রদীপ মিত্রের দশটি কবিতা দাবায়া রাখবার পারবা না পৃথিবীতে আছে যত নগরাদি গ্রাম সর্বত্র প্রচার হইবে মোর নাম ......... .........—শ্রীচৈতন্যচরিতামৃত প্রদীপ মিত্রের দশটি কবিতা ছলকে ওঠে হৃদয় নদী ছলকে ওঠে শ্রাবণ হাওয়া একই সাথে ছলকে চলা বিশ্বকবির চোখের চাওয়া বাংলা ভাষার পঙক্তিমালা। . শ্রাবণ আকাশ ছলকে রে কৃষকবধূর বুকপাঁজরে বেতবুনিয়ার বাঁশের আড়া তাঁত-মাঝিদের চোখের তারা। . হৃদয় মাঝে কিংবদন্তি সংগ্রামের ঐ জয়ধ্বনি জয় বাংলার মর্মবাণী ঐ আকাশের উদার পঙক্তি। . ছলকে ওঠে, ছলকে ওঠে নিখুঁত চোখের দৃষ্টিরেখা দিব্যপথের অভয়সখা এক মুজিবের অনেক কথা। . মুজিব আমার গৌরদেহী সাংখ্যযোগের কপিলমুনি ছলকে ওঠে পতঞ্জলি যাগবল্ক্যের বেদধ্বনি। . ছলকে ওঠে ভোরের আকাশ চন্দ্রমার ঐ জল-জাঙ্গলা&nb...
লাল বৃত্তের ভেতর আটকে থাকা কবিতা
কবিতা, সাহিত্য

লাল বৃত্তের ভেতর আটকে থাকা কবিতা

লাল বৃত্তের ভেতর আটকে থাকা কবিতা জ্যোতি পোদ্দার লাল বৃত্তের ভেতর আটকে থাকা কবিতা এক বেশ মানিয়েছে তোমাকে। . যদিও কালো ক্লিপে জোর করে ধরে রেখেছো .............. .............. .............. সাদা ক্যাপ। বাঁকা বাতরের মতো পায়ে চলা সিঁথিতে কোনো পথিক নেই। এ-প্রান্তে লালটিপ ও-প্রান্তে ঝাঁকবাঁধা .............. .............. চুলের নেড়া ঢিপি। কোনো প্রজাপতি নেই কোনো চঞ্চল ফড়িঙ নেই। . শুধু কালো সিল্কি চুল কালোয় কালোয় কুচকুচে কালোয় ফুটেছে কালোর বিভা। . আহা! কালোর ছটায় কালো স্নিগ্ধতা কতগুণ আহ্লাদ ছড়ায়—সকালের ডানায় ফুটে থাকা কুঞ্জফুলের মতো সাদায় সাদা আরো সাদা এ্যাপ্রোন .............. .............. জানে না জানে না। লাল বৃত্তের ভেতর আটকে থাকা কবিতা দুই তোমার হাসির ভেতর যে জলপ্রপাতের মতো .............. .............
প্রদীপ মিত্রের হাওয়ার ঢেউ
কবিতা, সাহিত্য

প্রদীপ মিত্রের হাওয়ার ঢেউ

হাওয়ার ঢেউ প্রদীপ মিত্র প্রদীপ মিত্রের হাওয়ার ঢেউ ক বিবেকের ভেতর কখন কে যে কীভাবে হঠাৎ গাঁথে হাওয়ার ঢেউ নীলময়ূরীর ডানার নাচের ঝাঁট; ফাৎ ফাৎ ওড়ে বকের আকাশ। ও নাম জানি না; সে ধাম চিনি না; শুধু বুকের ভেতর এক বিশ্বাস না-বলে যে কেউ আসতেই পারে; না-বলে যেতেও পারে কেউ... . খ হারাইনি কিছু; কিছুই হারাই নাই; দিলের ভেতর গুঁজে রেখেছি একটি পাই... . গ নেচে নেচে যাই কোনো কথা নাই, নাই কোনো হৃদয়ের ব্যথা . হৃদয়ে হৃদয় মেলায় আমার ভাই; চেতনার আঙিনায় আমরা দু’ভাই দুই হাত ঊর্ধ্বে তুলে আকাশ-রাঙানো সুরে আর স্বরে গান গেয়ে গেয়ে ধেই ধেই করে নেচে নেচে যাই... . ঘ সংকোচনে সূর্য, রুদ্রচূর্ণ কেশবের কেশ। সাগর-বায়ুর নাভীশ্বাসে বৃক্ষতরু, তৃণ-শস্যমূল, নদীস্রোত নিমজ্জিত; মাটির সহস্র অনুতাপ। মানুষ আমূলে এঁটেছে স্নায়ুর তুমুল লাভের প্রত...
নিহিত মর্মকথা
কবিতা, সাহিত্য

নিহিত মর্মকথা

নিহিত মর্মকথা সুনীল শর্মাচার্য নিহিত মর্মকথা ঘরে বসে কেউ ভাবছে লকডাউনের স্বপ্ন কিংবা যথাযথ ভবিত্যব্য . কেউ ভাবছে আগামী দিনে চাকরি থাকবে কিনা? কেউ ভাবছে ক্ষুধায় জোটাতে পারবে কিনা এক মুঠো ভাত! . মাত্র একুশ দিন নয়, আরো কিছুদিন তারপর হয়তো— ভেঙে দেবে সমাজ কাঠামো অর্থনীতি, কর্মসংস্থান... . ২ বিশ্ব বলছে ‘চীনা ভাইরাস’ যা জন্ম চীনাদের হাতে : . এ এক মারণ অহঙ্কার, এ এক বিভীষিকা, এ এক কালাপাহাড়— ধ্বংস, ধ্বংস, মৃত্যু যার করুণ ইতিহাস! . প্রকৃতির কাছে মানুষ অসহায়! . ৩ তুমি কি ভেবেছ কক্ষণো?— একটা ক্ষুদ্র ভাইরাসও কি শক্তিশালী! পৃথিবীর তামাম অহঙ্কারী কোটি কোটি মানুষ কেমন মৃত্যু ভয়ে চুপসে, ঘরবন্দী... . বাইরে বৃক্ষলতা, পশুপাখি তারাও সাহসী আজ... . বাতাস ঝিরিঝিরি বয়ে যায় পৃথিবীর মায়ামমতা নিয...