শনিবার, জানুয়ারি ২৩সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়...

জীবনচর্যা

দেশে করোনায় আরো ৪০ জনের মৃত্যু
করোনাভাইরাস, বাংলাদেশ, বিশেষ প্রথম, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

দেশে করোনায় আরো ৪০ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময় নতুন করে আরো ১ হাজার ৮৭৭ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। দেশে এখন পর্যন্ত ৪ লাখ ৯৪ হাজার ২০৯ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৭ হাজার ১২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ২৬ হাজার ৭২৯ জন। দেশে করোনায় আজ মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর ২০২০) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ-তথ্য জানানো হয়। অ্যান্টিজেনভিত্তিক পরীক্ষাসহ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৯ হাজার ৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার সংখ্যা বিবেচনায় রোগী শনাক্তের হার ৯ দশমিক ৮৫শতাংশ। গত ২৫ অক্টোবরের পর আজ প্রথম রোগী শনাক্তের হার ১০ শতাংশের নিচে নামল। আজ একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক নমুনা পরীক্ষার রেকর্ড হয়েছে। এর আগে এক দিনে সর্বোচ্চ ১৮ হাজার ৮৯৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। দেশে করোনায় উল্লেখ্য, গত বছরের (২০১৯) ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরা...
নাসির আহমেদের কবিতা : জীবনঘনিষ্ঠ মৃত্যুর নন্দনশিল্প
প্রবন্ধ-গবেষণা, শুভ জন্মদিন, সাহিত্য

নাসির আহমেদের কবিতা : জীবনঘনিষ্ঠ মৃত্যুর নন্দনশিল্প

৬৯তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা নাসির আহমেদের কবিতা জীবনঘনিষ্ঠ মৃত্যুর নন্দনশিল্প সুমন সরদার নাসির আহমেদের কবিতা কাব্যালোচনার জন্যে কেউ কবিতার নির্মাণশৈলীর চমৎকারিত্বের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে চান। আবার কেউ কবিতার আত্মানুসন্ধানে মনোযোগ দিতে চান। কেউ-বা মনে করেন, কবির দেশ, সময়, সমাজব্যবস্থা, কবির বাস্তব অভিজ্ঞতা, প্রতিভার মাত্রা প্রভৃতি অনুসন্ধানের মাধ্যমে কবিতার সমগ্র তাৎপর্য উদ্ধার সম্ভব। কবি নাসির আহমেদের কবিতা আলোচনা করতে এর যে কোনো মত গ্রহণ করলেই তাঁর কবিতার নিগূঢ় প্রদেশে অবগাহন করা যায়। কেননা তিনি কবিতা নির্মাণে আজীবন সহজাত। সহজাত ভঙ্গিতেই রচিত তাঁর কবিতায় পাওয়া যায় ছন্দ, চিত্রকল্প, বাক্‌-ভঙ্গি এবং বিন্যাসের কারুকাজ। সহজাত গুণটির সঙ্গে শিল্প-ভাবনার পরিপক্কতা তাঁর কবিতায় যোগ করেছে ভিন্নমাত্রা। বাংলা কবিতা এক জায়গায় থেমে নেই। সময়ের সঙ্গে, যুগের সঙ্গে কবিতার বিষয...
গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে করণীয়
গ্যাস দুর্ঘটনা ও সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, দুর্ঘটনা, নিরাপত্তা, বাংলাদেশ, বিশেষ প্রথম, মহানগর, রাজধানী, সতর্কতা ও পরামর্শ

গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে করণীয়

গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে আপনার কি কি করণীয় অথবা যা করবেন, জেনে নেয়া বা রাখা খুব খুব জরুরি। কারণ রাজধানী ঢাকা-সহ দেশের বিভিন্ন শহরে এরই মধ্যে গ্যাসলাইন পৌঁছে গেছে। অন্যদিকে, বেড়েছে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার। আপনি নিশ্চয় অবগত আছেন, গ্যাসের পাইপলাইন ও চুলার সংযোগ থেকে প্রায়ই গ্যাস বের হয়ে অগ্নি দুর্ঘটনা ঘটে। এই দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে বেশ কিছু সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্বালানি বিভাগ। উল্লেখ্য, ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, ময়মনসিংহসহ দেশের ১৪টি জেলায় তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি গ্যাস সরবরাহ করে। সম্প্রতি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তাঁর ফেসবুকে গ্যাস দুর্ঘটনা রোধে কিছু পরামর্শ দিয়ে পোস্ট দেন। যার কিছু অংশ তুলে ধরা হলো, সঙ্গে গ্যাস সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ রোধে যা যা...
করোনায় দেশে আরো ৩১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৯৩
করোনাভাইরাস, বাংলাদেশ, বিশেষ প্রথম, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

করোনায় দেশে আরো ৩১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৯৩

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে আরো ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ-সময় আক্রান্ত হয়েছেন ২২৯৩ জন। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ১৭ জন পুরুষ ও ১৪ জন নারী। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৬ হাজার ৬৭৫ জনে। আজ মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর ২০২০) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য-জানানো হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৮টি ল্যাবরেটরিতে ১৫ হাজার ৯৫৯টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৫ হাজার ৫০১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ২৭ লাখ ৮৮ হাজার ২০২টি। এ সময়ে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরো দুই হাজার ২৯৩ জন। দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৪ লাখ ৬৭ হাজার ২২৫ জনে। উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম শনাক্তের খবর জানানো হয়। এর ১০ দিনের মাথায় ১৮ মার্চ করোনায় দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে সরকার। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, টিকা না আসা পর্যন্ত নতুন এই ভাইরাস...
সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াণ
টলিউড, প্রয়াণ দিবস, বিনোদন, বিশেষ প্রথম

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াণ

সত্যজিত রায়ের অপু ও ফেলুদা চরিত্রের অমর শিল্পী, অভিনেতা, আবৃত্তিকার, কবি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়; তাঁর প্রয়াণ হলো আজ। ভারতীয় সময় ১২টা ১৫ মিনিটে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে তাঁর মৃত্যুর ঘোষণা দেওয়া হয়। এর মধ্য দিয়ে হাসপাতালে তাঁর ৪১ দিনের যুদ্ধ শেষ হলো। হাসপাতাল সূত্র থেকে জানা যায়, কোভিড এনসেফ্যালোপ্যাথির কারণেই সবরকম চিকিত্‍সার উদ্যোগ ব্যর্থ হয়েছে। অনেকের বিচারে ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম সেরা এই অভিনেতার মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। প্রথমত, তিনি ছিলেন অভিনেতা। কবিতাচর্চা, রবীন্দ্রপাঠ, সম্পাদনা, নাট্যসংগঠন—তাঁর বিপুল বৈচিত্র্যের একেকটি দিক। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় সবকিছু নিয়েই অনন্য। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এমনই এক শিল্পী, যাঁর মূল্যায়ন নিয়ে কোনো পণ্ডিতি-তর্ক তোলার অবকাশ রাখে না। বলা হতো সময়ের ধুলা তাঁর আভি...
জেল হত্যা দিবস
খুন, প্রয়াণ দিবস, বিশেষ প্রথম, রাজনীতি, স্মরণ

জেল হত্যা দিবস

আজ ৩ নভেম্বর, জেল হত্যা দিবস। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে হত্যার পর জাতির ইতিহাসে এটি দ্বিতীয় কলঙ্কজনক অধ্যায়। ’৭৫-এর ১৫ আগস্টের নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর তিন মাসেরও কম সময়ের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী ও চার জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, এ এইচ এম কামারুজ্জামান এবং ক্যাপ্টেন মনসুর আলীকে এই দিনে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এর আগে ১৫ আগস্টের পর এই চার জাতীয় নেতাকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। জেল হত্যা দিবস। কর্মসূচি বাংলাদেশের মানুষ আজ মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী ও চার জাতীয় নেতাকে যথাযথ শ্রদ্ধা প্রদর্শনের মাধ্যমে দেশের ইতিহাসের অন্যতম বর্বরোচিত এই কালো অধ্যায়টিকে স্মরণ করছে। আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠনের উদ্যোগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারাদেশে শোকাবহ এই দিন...
শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন আজ
বিশেষ প্রথম, রাজনীতি, শুভ জন্মদিন

শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন আজ

আজ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন। বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট ভাই শেখ রাসেল ১৯৬৪ সালের এই দিনে ধানমন্ডির ঐতিহাসিক স্মৃতি-বিজড়িত বঙ্গবন্ধু ভবনে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট মানবতার শত্রু ঘৃণ্য ঘাতকদের নির্মম বুলেট থেকে রক্ষা পাননি শিশু শেখ রাসেল। বঙ্গবন্ধু এবং পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে নরপিশাচরা নির্মমভাবে তাঁকেও হত্যা করেছিল। তিনি তখন ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র ছিলেন। এর আগে আল্লাহর দোহাই দিয়ে না-মারার জন্য খুনিদের কাছে আর্তি জানিয়েছিলেন শেখ রাসেল। চিৎকার করে তিনি বলেছিলেন, ‘আল্লাহর দোহাই আমাকে জানে মেরে ফেলবেন না। বড় হয়ে আমি আপনাদের বাসায় কাজের ছেলে হিসেবে থাকবো। আমার হাসু আপা দুলাভাইয়ের সঙ্গে জার্মানিতে আছেন। আমি আপনাদের পায়ে পড়ি, দয়া করে আপনারা আমাকে জার্মানিতে...
রাজধানী ঢাকার প্রায় অর্ধেক মানুষ করোনায় আক্রান্ত
বাংলাদেশ, বিশেষ প্রথম, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

রাজধানী ঢাকার প্রায় অর্ধেক মানুষ করোনায় আক্রান্ত

রাজধানী ঢাকার ৪৫ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, এমন তথ্য এসেছে অ্যান্টিবডি পরীক্ষায়। আক্রান্তদের ২৪ শতাংশের বয়স ৬০ বছরের বেশি। আর ১৫ থেকে ১৯ বছরের মধ্যে রয়েছে শতকরা ১৮ শতাংশ। জিন বিশ্লেষণ করে গবেষকেরা অনুমান করছেন, ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি দেশে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছিল। আজ সোমবার (১২ অক্টোবর ২০২০) বিকেলে রাজধানীতে বিশেষ সেমিনারে বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি ও জিন রূপান্তর নিয়ে গবেষণার এই তথ্য প্রকাশ করা হয়। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) ও বেসরকারি আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআরবি) যৌথভাবে এই গবেষণা করেছে। এই গবেষণায় আর্থিক সহায়তা দিয়েছে—যুক্তরাষ্ট্রের দাতা সংস্থা ইউএসএ আইডি এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। গবেষণায় দেখা গেছে, ঢাকা শহরের বস্তির প্রায় তিন চতুর্থাংশ মানুষ ইত...
এইচএসসি পরীক্ষা না-হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে যেসব জটিলতা তৈরি হতে পারে
বাংলাদেশ, বিশেষ প্রথম, শিক্ষা

এইচএসসি পরীক্ষা না-হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে যেসব জটিলতা তৈরি হতে পারে

করোনাভাইরাস (কোভিট-১৯) মহামারির মধ্যে চলতি বছর জেএসসি ও এসএসসি-র ফলাফলের গড়ের মাধ্যমে এইচএসসি-র ফল নির্ধারণের কারণে বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের জটিলতা তৈরি হবে বলে মনে করছেন শিক্ষা বিশেষজ্ঞরা। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হয় যে কোনো শিক্ষার্থীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার যোগ্যতা আছে কি না। আর অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার ফলও নির্ভর করে—এই দুই পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলের ওপর। পাশাপাশি ইঞ্জিনিয়ারিং বা মেডিকেলে পড়তে চাইলে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিতের মতো কয়েকটি নির্দিষ্ট বিষয়ে ন্যুনতম গ্রেড প্রয়োজন হয়। সে-কারণে পরীক্ষা না-নিয়ে জেএসসি ও এসএসসির ফলের ওপর ভিত্তি করে এইচএসসির ফলাফল দেয়া হলে—বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে জটিলতা তৈরির সম্ভাবনা থাকে। এবার হলো ও তাই। যে ধরনের জটিলতা হতে পারে বর্তমান নি...
গোকুল মেধ বা বেহুলার বাসরঘর
ইতিহাস-ঐতিহ্য, বাংলাদেশ, ভ্রমণ, সারাদেশ

গোকুল মেধ বা বেহুলার বাসরঘর

গোকুল মেধ বা বেহুলার বাসরঘর আফরোজা অদিতি বগুড়া শহর থেকে ১০ কি.মিটার উত্তরে এবং মহাস্থান গড় থেকে ২ কি.মিটার দক্ষিণে গোকুল গ্রামে এই ‘গোকুল মেধ’ পুরাকীর্তি অবস্থিত। গোকুল, রামশহর, ও পলাশবাড়ি—এই তিনটি গ্রামের সংযোগস্থলে এই মেধটি অবস্থিত। এই স্মৃতিস্তুপটি অতীতের অসংখ্য ঘটনার স্বাক্ষর বহন করছে। এটি বেহুলা-লক্ষিন্দরের বাসরঘর বলেও পরিচিত। এই বাসরঘর মেড় থেকে মেধ নামে পরিচিতি পেয়েছে। বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মতে, মেধটি আনুমানিক ৭ম শতাব্দী থেকে ১২শ শতাব্দি মধ্যে নির্মিত হয়েছে। কথিত আছে—এখানে বেহুলা-লক্ষিন্দরের বাসর হয়েছিল। কিন্তু বর্তমান গবেষকদের মতে, এই কীর্তিস্তম্ভটি নির্মাণ করেন দেবপাল এবং এটি ৮০৯ থেকে ৮৪৭ খ্রিস্টাব্দে নির্মিত একটি বৌদ্ধমঠ। বিভিন্ন সময়ের তথ্যমতে জানা যায়, বিখ্যাত পর্যটক ইবনে বতুতা ও হিউয়েন সাং তাঁদের ভ্রমণকাহিনীতে—এটিকে বৌদ্ধমঠ হিসেবেই উল্লেখ...