shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

সৌদি আরবে ঈদ ৩১ জুলাই

Eid-Soudi-Arab
Eid-Soudi-Arab

সৌদি আরবে কোরবানির ঈদ উদযাপিত হবে আগামী ৩১ জুলাই। গতকাল সোমবার (২০ জুলাই) দেশটির সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছেন, এবারের আরাফাত দিবস পালিত হবে ৩০ জুলাই (বৃহস্পতিবার)।

আর কোরবানির ঈদ উদযাপিত হবে ৩১ জুলাই (শুক্রবার)।

এদিন কমিটি কোথাও চাঁদ দেখার খবর পায়নি। আজ মঙ্গলবার (২১ জুলাই) সূর্যাস্তের পর চাঁদ দেখা যায়।

ইসলামিক পঞ্জিকার ১২তম মাস শুরু হচ্ছে আগামীকাল ২২ জুলাই (বুধবার)। ওইদিন থেকে হজও শুরু হবে।

এবার অবশ্য নির্বাচিত মাত্র ১০ হাজার জন হজ পালনের সুযোগ পাচ্ছেন।

এদিকে, ঈদের ছুটিও নির্ধারণ করেছে দেশটি। বেসরকারিখাতের চাকরিজীবীরা চারদিনের ছুটি পাবেন।

—যা শুরু হবে ৩০ জুলাই (বৃহস্পতিবার), শেষ হবে ২ আগস্ট (রোববার)। আর সরকারি চাকরিজীবীরা ছুটি পাবেন দুই সপ্তাহের।

তাদের ছুটি শুরু হবে ২৪ জুলাই (শুক্রবার), শেষ হবে ৮ আগস্ট (শনিবার)। ৯ আগস্ট (রোববার) থেকে কাজে যোগ দেবেন তারা।

এবার হজে কাবা ছোঁয়া যাবে না

করোনার কারণে এবার সৌদি আরবে নির্বাচিত মাত্র ১০ হাজার জন হজ পালনের সুযোগ পাচ্ছেন।

তাদের জন্য কিছু নির্দেশনা এরই মধ্যে জারি করা হয়েছে—এবার হজ পালন করতে গিয়ে কাবা শরিফ ছোঁয়া যাবে না৷

এ ছাড়া কাবার চারদিকে ঘোরাসহ নামাজ, রেস্তোরাঁ সব জায়গায় একে অন্যের চেয়ে দেড় মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে৷

শয়তানকে মারার জন্য এবার মুসল্লিদের একটি থলেতে ভরে জীবাণুনাশক পাথর দেয়া হবে৷ এ ছাড়া হজ পালনের সময় সবজায়গায় মাস্ক পরতে হবে৷

মুসল্লিদের মধ্যে কারো করোনা আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ দেখা দিলে চিকিৎসকদের অনুমতি সাপেক্ষে তাকে হজ শেষ করতে দেয়া হবে৷

তবে তাদেরকে অন্য মুসল্লিদের থেকে আলাদা করা হবে এবং আলাদা বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হবে৷

উল্লেখ্য, আরব বিশ্বের মধ্যে সৌদি আরবে সবচেয়ে বেশি প্রায় দুই লাখের অধিক মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন৷ মারা গেছেন দুই হাজার জনের বেশি৷

এর আগে, ২০১৩ সালে মিডলইস্ট রেসপিরেটরি সিন্ড্রোম বা মার্স ভাইরাসের প্রকোপের সময় বয়স্ক ব্যক্তি ও দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্তদের হজ করতে দেয়া হয়নি৷

করোনায় সৌদিতে এক লাখ বাংলাদেশি শ্রমিকের কর্মসংস্থান হুমকির মুখে

প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে অনেক নারী শ্রমিক যান সৌদি আরবে।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শ্রমবাজার সৌদি আরবে গত তিন মাসে অন্তত এক লাখের বেশি মানুষের যাওয়া আটকে গেছে।

এদের অর্ধেকের বেশি ছুটি কাটাতে দেশে এসে ফিরতে পারেননি।

অন্যদিকে, মহামারি পরিস্থিতি ঠিক হবার আগ পর্যন্ত সৌদি আরব নতুন করে আর বিদেশি শ্রমিক নেবে না বলে খবর দিচ্ছে দেশটির গণমাধ্যম।

যদিও কর্মকর্তারা বলছেন, সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে এ ধরণের কোনো ঘোষণা বা সিদ্ধান্ত বাংলাদেশকে জানানো হয়নি।

তবে, যাদের বৈধ পাসপোর্ট এবং আকামা বা কাজের অনুমতিপত্র আছে, তারা যাতে চাকরি না হারায়,

সে জন্য সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাস দেশটির সরকারের সাথে যোগাযোগ রাখছে।

নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

ডেস্ক শুভবিশ্ব

সূত্র : আরব নিউজ, গালফ নিউজ, খালিজ টাইমস, জেডএইচ, এসিবি, রয়টার্স, ডিপিএ, বিবিসি নিউজ বাংলা

Spread the love