shubhobangladesh

সত্য-সুন্দর সুখ-স্বপ্ন-সম্ভাবনা সবসময়…

শেরপুরে ছোটকাগজ চর্চা – ৩১তম পর্ব

Little Magazine
Little Magazine

শেরপুরে ছোটকাগজ চর্চা – ৩১তম পর্ব

জ্যোতি পোদ্দার

শেরপুরে ছোটকাগজ চর্চা – ৩১তম পর্ব

একত্রিশ

শিল্প ও সাহিত্য বিষয়ক ম্যাগাজিন ‘রঙধনু’। ২০০৫ সাল থেকে যাত্রা। মূলত একুশে সংকলন। রঙধনু শিক্ষা পরিবারের নিয়মিত প্রকাশনা। সম্পাদক এনামুল হক লিখেছেন, ‘আমি আমার রক্তের মাঝে দারুণ এক আনন্দ অনুভব করছি। টাকা-পয়সার আনন্দ না, ক্ষমতার চূড়ান্ত শিখরে বসার আনন্দ না—এ আনন্দের কাছে পৃথিবীর সকল আনন্দ তুচ্ছ; এই আনন্দ হলো বইমেলার আনন্দ; লিটলম্যাগ প্রকাশের আনন্দ।’

সম্পাদক যথার্থই বলেছেন। সৃষ্টিশীলতার আনন্দ উল্লাসই ইতিবাচক সমাজ গঠনের পূর্বশর্ত। কবিতা, গল্প, ছড়া ও প্রবন্ধে সাজানো ‘রঙধনু’। এই সংখ্যায় শামসুজ্জামান খান লিখেছেন, ‘বইমেলার ইতিহাস ও নতুন আঙ্গিকে বইমেলা’।

২০১৪ সালে রাজনীতি, কবিতা, সংগঠক ও সংগঠন ক্ষেত্রে যাদের ভূমিকা রয়েছে—তাদেরকে প্রদান করা হয় ‘রঙধনু অ্যাওয়ার্ড ২০১৪’। এনামুল হক উদ্যোগী সংগঠক। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার পাশাপাশি সাহিত্যচর্চা ও পত্রিকা প্রকাশ নিয়মিত করে যাচ্ছে।

‘ফোঁটা’র পথ চলা শুরু দুই হাজার আঠারোতে। এটি নারীদের নিয়ে গড়ে ওঠা নারী রক্তদান সংস্থা। এক ফর্মার রঙিন অফসেটে ছাপা। বার্ষিকী বের হবে অথচ কবিতা চর্চা থাকবে না—তা তো হতে পারে না।

স্থানিক যে কোনো ম্যাগাজিনে কবিতা, গল্প, ছড়ার চর্চার গড়াগড়ি অবধারিত। এ ছাড়া তাদের লক্ষ্য ‘প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানো, পরিবেশ আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঋদ্ধ প্রগতিশীল কর্মসূচিকে বাস্তবায়নের তৎপরতা চালানো।’

সম্পাদক প্রতিভা নন্দী আরো লিখেছেন, ‘নিজেদের লেখাপড়া ও পারস্পরিক সহযোগিতা’ দ্বার উন্মোচন করা। কবিতা লিখেছেন—পঞ্চমী দেব, ইন্দ্রানী বিশ্বাস, তমা ঘোষ, ফারজানা হিমু ও মাহমুদা খাতুন। ‘ফোঁটা’র প্রধান উপদেষ্টা জয়শ্রী দাস লক্ষ্মী।

কবি নীহার লিখনের সম্পাদিত কাগজ ‘উৎপথ’ প্রকাশিত হয় ২০০৮ সালে। তিনি একটা সংখ্যাই করেছেন, যদিও একাধিকবার উদ্যোগ নিয়েও প্রকাশ করে উঠতে পারেননি। কবি রণজিত নিয়োগীর প্রচ্ছদে একটা ঝরঝরে সাজানো দুই ফর্মার কাগজ।

এই উত্তর জনপদ টাউন শেরপুরের কবি নীহার লিখন প্রথম সংখ্যায় চমৎকার কবি কবিতার সমাবেশ ঘটিয়ে সম্পাদকের যে মুন্সিয়ানা থাকে তার পরিচয় তিনি লেখা নির্বাচনে যেমন দিয়েছেন, তেমনি সম্পাদকীয়ে।

‘আমার কাছে কেন জানি দশকে আবদ্ধ থাকাটাই নিছকই দলবাজী বা কূপমণ্ডুকতা বলে মনে হয় কিংবা নপুংশকতা বললেও বোধ হয় খুব একটা ভুল বলা হবে না।’ কবি নীহার এই সময়ে লিখতে আসা মেধাবী কবি। তিনি ঠিক ঠিক বাংলা কবিতায় দীর্ঘদিনের দশক বিভাজনের যে মনোগাঠনিক ভাব-ভাবনা তাকে সরাসরি নাকচ করে দিয়ে যাত্রা শুরু করেছেন।

তিনি আরো লিখেছেন, ‘দুর্বল নপুংশকরাই একার শক্তিতে বিশ্বাস না-পেয়ে দল বেঁধে চলে। বিশাল ফুটবল মাঠে দমের অভাবে করিডোরে খেলে।’

তাঁর বাছাই প্রক্রিয়াওতে দশক ছিল না। এক মলাটের ভেতর কবি নির্মেলুন্দু গুণ, মাকিদ হায়দারের পাশাপাশি অতনু তিয়াস, তারেক আহসানকে রেখেছে পরম মমতায়।

উৎপথ—আভিধানিক অর্থ তাই হোক না কেন; সম্পাদক হিসেবে কবি নীহার যে কৈয়ফিত হাজির করেছেন সেটুকু শোনাও কম জরুরি নয়, ‘…উৎপথ বখে যাওয়া তথা নষ্ট পঁচা রাজনীতির প্রশ্রয়দুষ্ট অন্ধকারাচ্ছন্ন পঙ্কিল, নেশাচ্ছন্ন গলিপথ বা কুপথ-অপথ-বিপথ অর্থে নয়, বরং এসবের বিরুদ্ধে সোচ্চার স্পর্ধিত একটা বিরুদ্ধ পথ।’

এই উচ্চারিত বয়ান দুই হাজার আটের। এক যুগ পেরিয়ে গেলেও, সেই পঙ্কিলতা বরং বেড়েছে। নীহার যে লড়াইয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে উৎপথ শুরু করেছিলেন—গত বারো বছরে তিনি আর উৎপথ প্রকাশ করার ফুসরত পাননি।

তা না-পেলেও নীহার দুই হাতে লিখছে। ইতোমধ্যে গোটা ছয়েক বইয়ের গর্বিত পিতা। তিনি লিখতে থাকুন, আমরা বরং উৎপথে প্রকাশিত কবিতাগুলো পড়তে থাকি…

.

শেষ রাতের বিপিন পার্কের মতো

যখন একা হই—শূন্যতা এসে

বসে থাকে পাশে। আমার একটা হাত

ক্রমশ বিচ্ছিন্ন হতে হতে সুতোকাটা ঘুড়ি

শূন্যে ধাবমান

শূন্যতা, সম্ভাবনার সোনালি প্রান্তর…

(শূন্যতা : অনিন্দ্য জসীম)

.

(চলবে)

…………………

পড়ুন

কবিতা

রাংটিয়া সিরিজ : জ্যোতি পোদ্দার

তিলফুল : জ্যোতি পোদ্দার

জ্যোতি পোদ্দারের কবিতা

প্রবন্ধ-গবেষণা

টাউন শেরপুরে প্রথম রবীন্দ্রজয়ন্তী

শেরপুরে ছোটকাগজ চর্চা

১ম পর্ব । ২য় পর্ব । ৩য় পর্ব । ৪র্থ পর্ব । ৫ম পর্ব । ৬ষ্ঠ পর্ব । ৭ম পর্ব । ৮ম পর্ব । ৯ম পর্ব । ১০ পর্ব । ১১তম পর্ব । ১২তম পর্ব । ১৩তম পর্ব । ১৪তম পর্ব । ১৫তম পর্ব । ১৬তম পর্ব । ১৭তম পর্ব । ১৮তম পর্ব । ১৯তম পর্ব । ২০তম পর্ব । ২১তম পর্ব । ২২তম পর্ব । ২৩তম পর্ব । ২৪তম পর্ব । ২৫তম পর্ব । ২৬তম পর্ব । ২৭তম পর্ব  । ২৮তম পর্ব  । ২৯তম পর্ব  । ৩০তম পর্ব  । ৩১তম পর্ব

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন...